রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:১৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
শিরোনাম
মনোহরদী পৌরসভার নির্বাচন বিপুল ভোটে সুজন বিজয়ী ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনারের সাথে রাসিক মেয়রের সৌজন্য সাক্ষাৎ বীরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে বেসরকারি ভাবে স্বতন্র প্রার্থী জয় টানা ৪র্থ বার মেয়র নির্বাচিত আলহাজ্ব মোঃ আনিছুর রহমান আনিছ পলাশে ডিবির অভিযানে ৩ চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী আটক রাজশাহীতে ৩ টি পৌর নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা রাজশাহীতে ২৩ নং- ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আয়োজনে শীতবস্ত্র বিতরণে উপস্থিত ছিলেন- রাসিক মেয়র লিটন চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দরে ১৫ শত শ্রমিককে শীতবস্ত্র বিতরন করা হয় চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে জনসচেতনতার বিকল্প নেয়, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব ওয়াহিদা নওগাঁর আত্রাইয়ে আস্থা অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে গরীব অসহায় হতদরিদ্রের মাঝে কম্বল বিতরণ

২৯শে নভেম্বর ফিলিস্তিনদের প্রতি সংহতি দিবস।

রাসেল হাসান স্টাফ রিপোর্টার দৈনিক পাবলিক বাংলা / ৯৩ শেয়ার
প্রকাশিত : শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০, ৭:১০ পূর্বাহ্ন

২৯শে নভেম্বর ফিলিস্তিনদের প্রতি সংহতি দিবস।

 

রাসেল হাসান,স্টাফ রিপোর্টার:

 

ফিলিস্তিন বা প্যালেস্টাইন পরাধীনতার শৃঙ্খল পরা একটি যুদ্ধাহত দেশ। ইহুদি সাম্রাজ্যবাদ থেকে নিজ দেশ বাঁচাতে যারা প্রতিনিয়ত লড়াই করে চলছে।

ফিলিস্তিনের ইতিহাস থেকে জানা যায় রাষ্ট্রটি এক সময় প্যালেস্টাইন নামেও পরিচিত ছিল। এর লোকসংখ্যা তখন ছিল প্রায় ১০ লাখ। এই লোকসংখ্যার  তিন ভাগের দু’ভাগ ছিল আরব জাতিভুক্ত বা মুসলমান, একভাগ ছিল ইহুদি।

লীগ অব নেশন্স-এর ম্যান্ডেট অনুসারে চলা ব্রিটিশ শাসনভূক্ত দেশটিতে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইহুদীদের চক্রান্তে ব্রিটিশ রাজ্য প্রতিষ্ঠার পাঁয়তারা করা হয় কিন্তু বিশ্বযুদ্ধের পরে ১৯৪৭ সালে জাতিসংঘের ফিলিস্তিন বিষয়ক বিশেষ কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে ফিলিস্তিনের জেরুজালেম শহরকে আন্তর্জাতিক শহরের মর্যাদা দিয়ে ‘ফিলিস্তিন’ ভূখণ্ডকে আরব ও ইহুদি অধ্যুষিত দু’টি রাষ্ট্রে বিভক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। কিন্তু এ চক্রান্তের ফলে ফিলিস্তিনের একাংশে ইসরায়েল নামে একটি ইহুদী রাস্ট্র প্রতিষ্ঠা হয়। অন্যদিকে ফিলিস্তিনি জনগণের জন্য আলাদা রাষ্ট্র গঠন তো দূরের কথা, তারা নিজ আদি নিবাস থেকে বিতাড়িত হতে থাকে। তখন থেকে ফিলিস্তিন ভূখণ্ডে আরব ও ইহুদি দ্বন্দ্বের সূত্রপাত, বর্তমানে তা  বিশ্ব সংকটের রূপ নিয়েছে।

১৯৭৭ সালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ ২৯ নভেম্বরকে ফিলিস্তিনি জনগণের সাথে সংহতি প্রকাশ করতে ‘আন্তর্জাতিক ফিলিস্তিন সংহতি দিবস’ হিসেবে গ্রহণ করে। এর ঠিক ১০ বছর পরে ১৯৮৭ সালের ২৯ নভেম্বর ‘ইউনাইটেড নেশনস পার্টিশন প্ল্যান ফর প্যালেস্টাইন’ প্রস্তাব অনুমোদিত হয়। এরপর থেকেই মুলত এ দিনটি ‘আন্তর্জাতিক ফিলিস্তিনি সংহতি দিবস’ হিসেবে সারা বিশ্বে পালিত হয়ে আসছে।

এরই প্রেক্ষিতে ২০১২ সালে ফিলিস্তিনকে প্রথমবারের মতো জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে পর্যবেক্ষক রাষ্ট্রের মর্যাদা দেয়া হয়।

সব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে ও নিজেদের দুর্বলতা কাটিয়ে উঠে ফিলিস্তিনি জনগণ যাতে স্বাধীন রাষ্ট্রের মর্যাদা পায়, ঐক্যবদ্ধ হয়ে বিশ্বে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারে, সে লক্ষ্য অনুপ্রাণিত করতে সারা বিশ্বে ‘আন্তর্জাতিক ফিলিস্তিন সংহতি দিবস’ প্রতিবছর পালিত হয়ে থাকে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ

পুরাতন সব সংবাদ

SatSunMonTueWedThuFri
      1
16171819202122
23242526272829
3031     
    123
45678910
       
    123
45678910
11121314151617
       
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
ব্রেকিং নিউজ
ব্রেকিং নিউজ