শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৫৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম
শিরোনাম
নাটোরের লালপুুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী পালিত নদী ভাঙনের মুখে ৫শ পরিবার ফুলবাড়ীতে ফ্রান্সে মহানবীর অবমাননার প্রতিবাদে বিক্ষোভ রোভার শাহাদাত হোসেনের বৃক্ষরোপন ও বাগান পরিচর্যা  বালুবাহী ট্রাকের চাপায় এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু। দামুড়হুদার জয়রামপুরে বিভিন্ন সারের দোকানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান  নড়াইলে রাসুল (সাঃ) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে লোহাগড়ায় প্রতিবাদ সমাবেশ  হবিগঞ্জের ৪ সাংবাদিকের নামে হয়রানি মূলক মিথ্যে মামলা ,প্রতিবাদে অলিপুরে মানববন্ধন পাটগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোগীরা পাচ্ছেন না সুচিকিৎসা সেবা জবিতে ‘বাংলাদেশের উপন্যাসে দেশভাগ ও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা’ শিরোনামে পিএইচ.ডি সেমিনার অনুষ্ঠিত

ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে ৫১ মুসল্লির হত্যাকারীর আজীবন কারাদণ্ড

প্রতিবেদকের নাম / ৬৭ শেয়ার
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২০, ১১:২১ পূর্বাহ্ন

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে গুলি করে ৫১ ব্যক্তিকে হত্যাকারী শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদী ব্রেন্টন টরেন্টকে আজীবন কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির আদালত। তিনি প্যারোল সুবিধা না পাবেন বলেও রায়ে জানানো হয়।

৫১ জনকে হত্যার পাশাপাশি আরও ৪০ জনকে হত্যার চেষ্টা ও সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন ২৯ বছরের অস্ট্রেলীয় নাগরিক ব্রেন্টন টরেন্ট।

বিবিসি জানান, রায় ঘোষণার সময় আদালতে হামলায় বেঁচে যাওয়া ব্যক্তি ও ভুক্তভোগীদের আত্মীয়রা উপস্থিত ছিলেন।

এ বন্দুক হামলা সারা বিশ্বকে নাড়িয়ে দেয়। এর পরপরই নিউজিল্যান্ডে অস্ত্র আইনে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়।

চার দিনের শুনানির পর আদালত এ রায় দেয়। শুনানির শেষ দিন আদালতের কোরআনের আয়াত পড়া হয় ও আদালতে প্রিয়জনের ছবি নিয়ে হাজির হন ভুক্তভোগী পরিবার।

এক প্রতিক্রিয়ায় ছেলে হারানো মা মাইসন সালামা বলেন, টরেন্ট পুরো নিউজিল্যান্ড সন্ত্রাস ছড়িয়ে দিতে চেয়েছে এবং বিশ্বকে দুঃখ দিয়েছে।

টরেন্টের হামলায় বাবাকে হারিয়েছেন সারা কাসেম। প্রতিক্রিয়া তিনি বাবা শেষ মুহূর্তকে স্মরণ করে দুঃখ প্রকাশ করেন।

রায় ঘোষণার আগে টরেন্ট আদালতে কোনো বক্তব্য দেবেন না বলে আগেই জানিয়ে দেন।

গত বছরের ১৫ মার্চ ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে বন্দুক নিয়ে গুলি করতে শুরু করে ওই হামলাকারী। গুলি করার দৃশ্য তিনি সরাসরি অনলাইনে সম্প্রচার করেন।

জুমার নামাজের সময় আল নূর মসজিদে তিনি প্রথম হামলা করেন। এরপর গাড়ি চালিয়ে পাঁচ কিলোমিটার দূরের লিনউড মসজিদে গিয়ে আবার হামলা করে আরও মানুষ হত্যা করেন।

ওই সময় বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা ক্রাইস্টচার্চে অবস্থান করছিল। দলের কয়েকজন সদস্য এমনকি হামলার শিকার হওয়া একটি মসজিদে নামাজও পড়তে গিয়েছিল। সৌভাগ্যক্রমে বেঁচে যান তারা। তবে হামলায় নিহতদের মধ্যে বাংলাদেশিও রয়েছেন।

এ ঘটনায় নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্নের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ সারা বিশ্বে প্রশংসিত হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ

পুরাতন সব সংবাদ

SatSunMonTueWedThuFri
    123
45678910
       
    123
45678910
11121314151617
       
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
ব্রেকিং নিউজ
ব্রেকিং নিউজ